অন্ধকারের গান

  • 5
  •  
  •  
  •  
    5
    Shares

অল্প অল্প করে গল্প পোকায়
খেয়ে রাখা মগজ,
পেতে চেয়েছিল তোমাকে আরো
একটুখানি সহজ।
“ভালো নেই” এই ছোট্ট কথাটা বলা মাত্রই একরাশ প্রশ্ন আর এক পাহাড় সমান বিশাল উদ্বিগ্নতা এনে দেয় মুহূর্তের মধ্যেই। প্রশ্নের ডালপালা শাখা-প্রশাখা ছড়িয়ে এক মুহূর্তে তৈরি করে ফেলতে পারে একটা বিশাল বড় অধ্যায়। অথচ “ভালো আছি” বলা মাত্রই মুহূর্তের মধ্যেই পরবর্তি প্রশ্নে চলে যাওয়া যায়। কথাটার কী অসামান্য জোর, তাই না? কেউ খুঁজেও দেখে না কথাটা আসল না নকল? সঠিক না ভুল? তাই হাসিমুখে বলা আর কান পেতে শোনো হয় – “আমি ভালো আছি”।

প্রতিটি ছবি মানেই এক একটি বিশেষ মুহূর্ত। কিন্তু কিছু ছবি শুধু একটা মুহূর্ত নয়, কিছু ছবি দীর্ঘ একটা অধ্যায়ও হতে পারে। হয়ে যায়, থাকে স্মৃতির পাতায়। হতে পারে জীবনের গভীর কোন গল্পও। অন্ধকার আমার প্রিয়। ঘুটঘুটে নিকষকালো অন্ধকার। যে আঁধারে বিলিন হলে কেবল, নিজেকেই খুঁজে পাওয়া যায়। দিনের আলোয় হাসি দিয়ে মনের যত বিষাদ সহজেই আড়াল করা যায় কিন্তু শত চেষ্টায় আড়াল করতে না পারা নিজের গল্পগুলো কেবল রাতের আঁধারই পারে গভীর মমতায় শক্ত আলিঙ্গনে আমায় জড়িয়ে ধরে বাঁচতে, বুকের অলিন্দে চেপে রাখতে।

এই ছেলে তুই বন্ধু কার?
– জীবন বিষাদ সিন্ধু যার।
মানুষ আমি জন্মগত,
নেই পরিচয় দেয়ার মতো।
কোথায় থাকিস, কোথায় খাস?
বল না কী তোর ইতিহাস?
আপনার হয়তো বন্ধু কম। এ নিয়ে মাঝে মাঝে হতাশ হয়ে পড়ছেন। একেবারেই এ নিয়ে ভাববেন না। কারণ এক সমীক্ষায় দেখা গেছে যারা যত বেশি বুদ্ধিমান তারা তত নিঃসঙ্গ। মূলত বুদ্ধিমানরা একা থাকতেই বেশি পছন্দ করেন। সমীক্ষায় উঠে আসে, যাঁরা বহু মানুষের সঙ্গ পছন্দ করেন না, তাঁরা খানিকটা হলেও বেশি বুদ্ধিমান। এঁরা একা থাকার মধ্যেই সবচেয়ে বেশি আনন্দ খুঁজে পান। এর পিছনে নানা কারণ থাকতে পারে। তবে প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, নিজেদের জীবনের লক্ষ্য জয় করতেই তাঁরা বেশিরভাগ সময় দেন আর একারনেই তারা একা থাকতে পছন্দ করেন।

– এই সমাজের সবাই কয়,
জীবন আমার দুঃখময়।
জন্ম থেকেই বোধটা এই,
আমার কোন বন্ধু নেই।
নিঃসঙ্গ এই আমাকে নিয়েও আশে পাশের মানুষ ভাবে আমার মাথায় কিঞ্চিৎ দোষ আছে। ব্যপার না। কারন আমিও ভাবি, তাদের অনেকের মাথায়ও কিঞ্চিৎ দোষ আছে। এ নশ্বর পৃথিবীতে কেউই দোষ বিহীন না। ছোট বড় নানা প্রকার দোষ ক্রুটি মাথায় নিয়ে আমরা ঘুরে বেড়াই এই মনুষ্য সমাজে। তাই কোন না কোন দোষে আমরা সকলেই দোষী। অনেকটা কাটা দিয়ে কাটা তোলা কিংবা বিষে বিষক্ষয় এর মতো। আমার মাথায় দোষের সাথে তাদের দোষের সঙ্গে সমান ভাবে কাটা কুটি। সুতরাং উভয় ব্যক্তির দোষ কাটাকুটির ফলে দোষ না থাকার কারনে আমরা উভয়েই নির্দোষে রুপান্তরিত হই পুনরায়। নই কি?

২৩/০৬/২০২০, ১১.৩৪ AM

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *