অ্যাপল ইন অ্যা নাটশেল

  •  
  •  
  •  
  •  

অ্যাপলের জনক যদিও স্টিভ জবসকে বলা হয়, তবে ১৯৭৬ সালের এপ্রিলে যাত্রা শুরু করা প্রতিষ্ঠানটি শুরু হয়েছিল তিনজনের হাত ধরে। অ্যাপলের প্রথম প্রডাক্ট অ্যাপল – ১, যার জনক ছিলেন পার্টনার ওজনিয়াক। অ্যাপল – ১ এর সকল ডিজাইন ও নির্মাণ হয়েছিল হাতে, এবং তা এককভাবেই করেছিলেন ওজনিয়াক। প্রতিষ্ঠার এক বছর পর, ১৯৭৭ সালে প্রতিষ্ঠানটি ইনকর্পোরেশন করা হয়। আরেক পার্টনার ওয়াওনিকে বাদ দিয়ে। যদিও বলা হয়, ওয়াওনি স্বেচ্ছায় সরে দাঁড়িয়েছিলেন। তবে অনেকেই মনে করেন, স্টিভ জবস ও ওজনিয়াক কৌশলে তাকে সরিয়ে দেন।

প্রযুক্তি জায়ান্ট এই প্রতিষ্ঠানটির দ্বিতীয় প্রডাক্ট ছিল অ্যাপল – ২। আগেরটার ধারাবাহিকতায় এটারও সকল ডিজাইন, প্রোগ্রামিং করেন আগেরজনই, ওজনিয়াক। এরই মধ্যে এক ধনকুবেরের কাছ থেকে ২ লাখ ৫০ হাজার ডলার ইনভেস্ট পায় অ্যাপল। এরপরে আর পেছনে তাকাতে হয়নি প্রতিষ্ঠানটিকে। ব্যবসা সফল প্রতিষ্ঠানটি ১৯৮৩ সালে সিইও হিসেবে দেয় জন কাউলিকে। যদিও নিয়োগের দুই বছরের মাথাতেই কাউলির সাথে ক্ষমতার দ্বন্দে জড়িয়ে পড়েন স্টিভ জবস। প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদ একই সাথে কাউলি ও জবসের ক্ষমতা হ্রাস করে দেয়। তবে শেষ পর্যন্ত এই ক্ষমতা দখলের নগ্ন কৌশলের জন্য কাউলি ও জবসকে একই সাথে অ্যাপল থেকে বহিস্কার করা হয়।

এরপর স্টিভস জবস নতুন কোম্পানি শুরু করেন নেক্সট ইনকর্পোরেশন নামে। ঘটনার পরিক্রমায় ১৯৯৬ সালে নেক্সট ইনকোর্পরেশনকে কিনে নেয় অ্যাপল। সেই সাথে জবসও ব্যাক করেন অ্যাপলের উপদেষ্টা হিসেবে। এরপরে তিনি নিয়োগ হোন ভারপ্রাপ্ত সিইও হিসেবে। তবে চতুর এবং কৌশলি স্টিভ জবস অসুস্থ থাকা অবস্থায় ২০১১ সালে টিম কুককে সিইও হিসেবে নিয়োগ দিয়ে অ্যাপলের চেয়ারম্যান হয়ে যান। যদিও এর আগে চেয়ারম্যান পদটিই ছিল না অ্যাপলে। এরপরে বাকিটা ইতিহাস।

১৭/০৫/২০২০, ১০.৫৭ PM

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *