কপোট্রনিক পিৎজা দুঃখ

  • 1
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

আজ থেকে আর মাত্র ২০ বছর পর আমাদের অবস্থা যেমন হতে পারেঃ
: হ্যালো! এটা কি পিৎজা হাট?
– না স্যার, গুগল’স পিৎজা।
: আমি কি তাহলে ভুল নাম্বারে ফোন করেছি?
– না স্যার, দোকানটা কিনে নিয়েছে গুগল!
: ওকে, আমি কি পিজার অর্ডার দিতে পারি?
– স্যার, সাধারণত যে পিৎজার অর্ডার দেন আজকেও কি ওটাই দিবেন?
: আমি সাধারণত যে পিৎজার অর্ডার দেই সেটা আপনি কিভাবে জানেন?
– আপনার ফোন নাম্বার অনুযায়ী, আপনি শেষ ১৫ বার ডাবল চিজ বারো স্লাইস সসেজ পিৎজা অর্ডার করেছেন।

: আমি এবারও ওটাই চাই।
– কিন্তু স্যার, কলেস্টেরল যেহেতু হাই তাই আমি ৮ স্লাইজ ভেজিটেবল পিৎজা অর্ডার করতে পরামর্শ দিচ্ছি।
: আমার কলেস্টেরল হাই এটা আপনি কিভাবে জানেন?
– সাবস্ক্রাইবার গাইড থেকে। আমাদের কাছে আপনার গত ৭ বছরের ব্লাড টেস্টের রিপোর্ট আছে।
: আমি ভেজিটেবল পছন্দ করি না, যেটা চাইছি ঐটাই দেন। কলেস্টেরল এর জন্য আমি ঔষধ খাই।
– কিন্তু আপনি তো নিয়মিত ঔষধ খান না। ৪ মাস আগে লাজ ফার্মা থেকে ৩০টা ট্যাবলেটের একটা বক্স কিনেছিলেন।
: আমি অন্য আরেকটা দোকান থেকে বাকিগুলা নিয়েছি।
– কিন্তু আপনার ক্রেডিট কার্ড তো তা বলছে না!

: আমি নগদ ক্যাশ দিয়ে কিনেছি।
– আপনার ব্যাংক স্টেটমেন্ট অনুযায়ী সে পরিমান টাকা আপনি উঠাননি।
: আমার অন্য আয়ের উৎস আছে।
– আপনার ইনকাম ট্যাক্স রিটার্ন ফর্মে সে তথ্য নাই।
: ধুর মিয়া, আপনার পিজার গুষ্টি কিলাই। পিজাই খামু না। গুগল, ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপ, সেলফোন, ইন্টারনেট ছাড়া দ্বীপে চলে যামু যেখানে আমার উপর কেউ এত নজরদারি করতে পারবে না।
– জ্বী স্যার বুঝতে পেরেছি, তার আগে আপনার পাসপোর্ট রিনিউ করতে হবে, ৫ সপ্তাহ আগে মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে!

১১/০৩/২০২০, ০৭.০০ PM

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *