কবিতায় অপমৃত্যু

  •  
  •  
  •  
  •  

তুমি বললে, “প্রিয়তমা, আমার আকাশ চুরি গেছে,
আমি এখন কিসে কবিতা লিখি?”
আমি আমার দু’চোখ তোমায় দিলাম।
বললাম, “এই নাও, চোখ পেতে দিলাম কবি।”
আমার দু’চোখ হলো উন্মুক্ত খাতা।
তুমি লিখতে বসলে।

তুমি বললে, “শেষ কবে বর্ষা এসেছে মনে নেই,
রামধনু আর ওঠে না এ উঠোনে,
এখন কিভাবে লিখি বলো?”
তারপর আমার ধমনীর বিশুদ্ধ রক্তে
তুমি ডোবালে তুলি,
সেই লালের আঁচড়ে একে একে লেখা হলো সবক’টা কবিতা।

আমার চোখের জল জমলো পাতায় পাতায়,
আমার তৃষ্ণারা ফুল হয়ে ফুটলো রঙিন প্রচ্ছদে।
আমার নির্ঘুম রাতেরা হলো বইয়ের মুখবন্ধ।

তোমার ভীষণ নাম হলো, যশ হলো,
জানলো লোকে তোমায়।
তুমি হলে অপ্রতিরোধ্য।
আমার নীরব মৃত্যু হলো
তোমার বইয়ের পাতায়, তোমার কবিতায়।

২৩/১০/২০১৯, ১১.৩০ PM

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *