জীবনের অংক

  •  
  •  
  •  
  •  

আম্মা আমাকে ক্লাস ফাইভ থেকে তিনটা অংকের কথা বলতেন। এই তিনটা অংকের একটা হলেও পরীক্ষায় আসবেই আসবে, আমিও নাছোড় বান্দা খুব বেশি আমল দিয়ে অংক গুলো করতাম না।
১. পিতা পুত্রের বয়সের অংক।
২. বানরের তৈলাক্ত বাশের অংক। এবং
৩. চৌবাচ্চার এক ফুটা দিয়ে পানি ঢুকা, আর দুই ফুটা দিয়ে বের হওয়ার অংক।
আজিব হলেও সত্য এই তিন অংক ঘিরে আপনার চাকরি আর সংসার জীবন ঘুরছে।

১. আপনার বয়স আর আপনার বসের বয়স এর দূরত্ব। আর কয়টা চাকরি বদলালে আপনি বসের বয়স (পদবি) কে ছুতে পারবেন।
২. তৈলাক্ত বাশ ধরিয়া অন্যদের সাথে পাল্লা দিয়া কতটুকুন উঠিয়া ধপাস করিয়া আবার উঠিয়া, অন্যদের পেছনে ফেলিয়া সোজা বসের কাছে যাইতে পারবেন।
৩. এক মাসের বেতন লইয়া বাড়ি ফেরার পর দুমাসের স্যালারীর সমপরিমাণ ঋন লইয়া আগাইয়া যাইবার লক্ষ্য স্থির করা।

আহারে জীবনের সাথে অংকের কি মিল আগে জানলে অংকের মীল খুলিয়া বসিতাম আর নাম দিতাম, “The mathematics mill limited.”

১৭/০৬/২০২০, ০৯.৫৪ PM

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *