ডুব

  •  
  •  
  •  
  •  

জগত চায় আপনি একা থাকুন। আপনাকে একা হিসেবেই তৈরি করা হয়েছে। আর আপনি অসহায়ের মতন আঁকড়ে ধরছেন এখানে সেখানে এ মানুষ সে মানুষ। এ ছেড়ে যায়, আপনার বুক ভেঙ্গে আসে। সে আরেকজনের হাত ধরে আপনি কাঁদতে বসেন। ন্যাচারাল ল এর বাইরে গেলে দুঃখ পেতে হবেনা? একলা চলতে পারছেন না কেন? সমস্যাটা কোথায়? সকালের লম্বা ছায়া দুপুর বেলা এসেই কেমন শূন্যে মিলিয়ে যাচ্ছে, দেখননি? মানুষ সামাজিক জীব, এরকম খেলো সস্তা রসিকতা বিশ্বাস করে ঠকেছেন? মানুষ একটা একলা জীব, বেয়াদব জীব, যা খুশি তাই করে অস্বিকার করা জীব।

অনুভুতিকে বিশ্লেষণ করে দেখুন মস্তিষ্কের প্রতিটি নিউরন খুব অদ্ভুত ভাবে সারা দিচ্ছে। চোখটা একটিবার বন্ধ করে দেখুন কি মায়াবী মুখ। একটা গোপন ইচ্ছের মত আহত বিকেল গুলোতে সেফটিফিন দিয়ে আটকে দিয়েছি অরন্য বিষাদ – শাড়ির আঁচলে এ ফোঁড় ও ফোঁড় বয়ে যায় অতীত বিষাদ, বর্তমান প্রফুল্লতা আর ভবিষ্যত আকাঙ্খা। অথবা ভাসমান স্বপ্ন। মেয়েটির ছিল রঙিন ইচ্ছে ডানা, মেললো আকাশে ডানা। মেয়েটির ছিল আকন্ঠ তৃষ্ণা। সাঁতার জানা না জানায় যায় আসেনি কিছুই, সেই সাগরের অতলে দিল সে ডুব। মেয়েটির ছিল ঝুড়ি ঝুড়ি অভিমান, ঝড় ও দহন বইতো একসাথেই। সে জানতো এপারে কেউ নেই। চলে গেছে আপনাকে ছেঁড়ে, একলা করে।

নিজেতে ডুবুন। দেখুন। কি অসামাজিক, অন্যায় করার কি প্রবল আগ্রহ! দেখুন, কতটা হিংস্র আপনি আপনার প্র্যাকটিস করে ভদ্দরলোক সাজা মুখের গহীনে! আরো কতকিছু লুকিয়ে রেখেছেন আরো কত গভীরে! কাউকে বলেছেন, এই সমস্ত নিয়ে আপনি সমাজ গড়তে বেরিয়েছেন? কঠিন হয়ে যাচ্ছে বেশি? হোক, মাঝে মাঝে নিজের মুখোমুখি না দাঁড়ালে কদিন পর নিজেকে ভিড় ভাট্টায় খুঁজে পাবেন কি করে? মিথ্যা মানুষ হয়ে মিথ্যা ভিড়ে হারিয়ে যাবেন তো মশাই!

৩০/০৭/২০২০, ০৬.২২ PM

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *