একটি নষ্ট-ভ্রষ্ট ব্রয়লার প্রজন্ম

  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের সমাজে প্রেম-পীরিতির এত প্রাদূর্ভাব কেন? বিদেশী যুব সমাজে কখনো এমন দেখিনি, প্রেম সেখানে আমাদের মত ‘মৌলিক চাহিদা’ নয়, প্রেম করতে যেয়ে ক্যারিয়ারে লাল বাতি জ্বালিয়ে দেয়া নারী পুরুষ আমাদের সমাজে যে কত আছে, তা আল্লাহই ভাল জানেন। আসেন এবার কিছু তিতা কথা বলি, ছেলেরা প্রেম করে কেন? একটা বড় কারন হচ্ছে প্রেমের নাম করে খেয়ে দেয়া। আরেকটা হচ্ছে সবার ‘গফ’ আছে তাই আমারো একটা লাগবে। আর অত্যন্ত অল্প কিছু পুরুষ আছে যারা আসলেই বিয়ে করতে চায় (এ প্রসঙ্গে পরে আসছি)। তবে এত বিপুল সংখ্যক মেয়ে কেন প্রেমের জন্য ছোক ছোক করে, তার ব্যাখ্যা দেয়া সহজ। প্রায় সময় আমাদের পরিবার আর সমাজ মেয়েদের শেখায় যে তাদের একমাত্র দায়িত্ব আর কর্তব্য হচ্ছে বিয়ে করে স্বামীর গলায় ঝুলে পড়া। তা ঝুলে যেহেতু পড়তেই হবে, অপরিচিত একটার গলায় ঝোলার চেয়ে বরং চেনা কারো গলায় ঝুলি।

লক্ষ্য করলে দেখবেন ঠিক এ কারনে যেসব পরিবারে মেয়েদের নিজেদের পায়ে দাড়াতে বলে বা যেসব পেশায় মেয়েদের নিজেদের পায়ে দাড়ানোর সুযোগ আছে, সেসব মেয়েরা আর যাই করুক না কেন, প্রেম করার জন্য ছোক ছোক করে বেড়ায় না, লেটস বি অনেস্ট, প্রেমের জন্য ছোক ছোক করাটা হচ্ছে কিছু মেয়ের বিয়ে আর সামাজিকতার জন্য হওয়া খরচাপাতি কমানোর ফন্দি মাত্র। এবার আসি নির্মম সত্য পার্টে, মাই ডিয়ার পোলাপাইন, যখন খুব ভাল মতই জানা আছে যে নিজের পায়ে দাড়ানোর আগেই প্রেমিকার বিয়ে হয়ে যাবার বিপুল সম্ভাবনা আছে, সেখানে সেই মেয়ের পেছনে এত টাকা আর সময় নষ্ট করার মানেটা কি?

এন্ড মাই ফেয়ার লেডিজ, যেখানে আপনারা ভাল মতই জানেন যে বেকুবগুলি নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে আপনাকে বিয়ে করার আগেই অন্য কারো সাথে বিয়ে হয়ে আপনি সম্ভবত দুই বাচ্চার মা হয়ে যাবেন, তাদেরই বা লেজে খেলানোর দরকারটা কি? অনেক আগে এক লেখায় বলেছিলাম, আজ আবার বলছি, ছেলেরা প্রেম করে হার্ডওয়্যার দেখে, আর বিয়ে করে সফটওয়্যার দেখে, কথাটা মনে রাখলে উপকৃত হবেন।

২৩/০৬/২০১৬, ১১.১০ PM

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *