মধ্যরাতের ডাকপিয়ন

  •  
  •  
  •  
  •  

জানো কি আমার যত অভিমান,
মেঘে ঢাকা ওই আকাশের সমান!
যদিও সন্ধ্যার আনাচে কানাচে পূর্ণ হয়ে গেছে রাত্রিতে। আটপৌঢ়ের এই শহরে রোদ, বৃষ্টি, জোছনা কিংবা অন্ধকারে কোন ছন্দ পতন হয়না। কে জানে কিংবা হয়। পাতার ফাঁকে শেষ কবে জোছনা দেখে হাঁটা হয়েছে মনে নেই। আবার অনেকদিন হয়ে গেছে পুরোপুরি মুগ্ধতা নিয়ে কারো গল্প শুনে বলার ভঙ্গি কল্পনা করে নিয়েছি। তবে এই শরীরে এখনো জানালা দিয়ে উড়ে আসা দমকা হাওয়া পরশ করে যায় প্রায়শই। এমনি করেই কখন যেনো বুকের কোণে জমে থাকা এক টুকরো শূন্যতা পুরো জায়গাটাই ঢেকে ফেলে টের পাইনা। ইচ্ছে হয়না কিছু বলতে, ইচ্ছে হয়না চুপ করে থাকতে। গল্পের উপসংহার থাকে। জীবনের নেই। বলা যাবেনা। সওয়া যাবেনা। কিন্তু বাঁচতে হবে। নিয়মিত নিজেকে উপহাস করে যেতেই হবে।

আজ জীবনের কোন গন্তব্য নেই। সীমাহীন দূঃস্বপ্নে আকাশ ছোঁয়া কল্পনা নেই। ভালবাসায় ডুবে যাওয়া নদীতে কোনো স্রোত নেই। আছে কেবল এক গভীর অন্ধকারাচ্ছন্ন রাত। যে রাতে এক এক করে হারানো সবকিছুই সামনে এসে যায়। মিশে যায় হৃদয়ে। কি প্রচন্ড হাহাকার। কি প্রবল বেদনায় মন ছেয়ে যায়। এমন করেই রাত পেরিয়ে যাবার অপেক্ষায় থাকা কেবল। আজ শুধু কোন ভোরের আভাস নেই।

অথচ ভালবাসা এসেছিলো সহস্র বছর পরে কোন এক কালে, কোন এক মানবীর হাত ধরে। কিংবা এসেছিলো দূর্ভাগা কোন যুবকের সাথে। তবুও এখানে কেবল থেকে গিয়েছে অযাচিত দূরত্ব। আর চিরন্তন ভালবাসাই মুছে গিয়েছে সময়ের কাছ থেকে।

০৮/০৪/২০১৯, ১০.০৮ PM

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *