শেষ বিকেলের মেয়ে (তৃতীয় পর্ব)

  •  
  •  
  •  
  •  

অপু টেনশন করছিল। আমার অবস্থা দেখে সে গম্ভীর হয়ে গেল। আমার সাথে কথাই বলল না। হাঁটতে শুরু করল চুপচাপ। আর আমি ওর পিছু নিলাম। রিকশার খোঁজে মাঝখানে মিনিট বিশেক দাঁড়িয়ে রইলাম দুজনে। রিকশা না পেয়ে সে জোরে জোরে হাঁটতে শুরু করল।
– এই, এই রফিক। আস্তে হাঁট। আমার পায়ে ফোস্কা পড়েছে।
– সবাই যখন চলে যাচ্ছিল তখন তুইও চলে গেলিনা কেন?
– বারে আমি ব্যান্ড শুনব না?
– আমি জানতাম তুই যাসনি। তাই গেটে দাড়িয়ে ছিলাম।
– আমাকে নিতে ভেতরে গেলিনা কেন?
– চেপ্টা হওয়ার ইচ্ছে হয়নি।
আমার গায়ে একজন বিশ্রিভাবে হাত দিয়েছে বলতে গিয়ে আমি কেঁদে ফেললাম।

অপু ব্যস্ত হয়ে বলল,
– কে হাত দিয়েছে, দেখেছিস?
– হয়েছে, আর বাংলা সিনেমার নায়ক হতে হবে না।
– সরি।
– সব তোর দোষ। আরো আগে ভেতরে গেলি না কেন?
তখন ঝিঁ ঝিঁ ডাকছে, আমরা অন্ধকারে মেঠো পথে নেমেছি। হাঁটছি একসাথে। অপু টর্চ ধরে রেখেছে। এখানে সন্ধ্যে নামলেই চারপাশ পাহাড়ের মত নীরব হয়ে যায়। এত সুন্দর বাতাস ছিল। জোনাকি ছিল। আকাশে নকশী কাঁথার মত তারা ফুটে আছে। কলেজ রোডে রিকশা খালি না পাওয়ায় কলেজের সামনের রোড ফেলে ছোট ছোট ঘাসে ঢাকা মেঠো পথ বেয়ে মূল সড়কে যাওয়ার ইচ্ছে আমাদের। এইতো আরেকটু সামনে গেলেই রিকশা পাওয়া যাবে।

শাড়িতে যে কত মারপ্যাচ বাপু। প্রথমবার শাড়ি পরা। হঠাৎই হিল বেঁকে গিয়ে ডিগবাজি খেয়ে আমি উল্টে গেলাম। অপু হাত ধরে টেনে তুলল আর একটা কী জানি হয়ে গেল। আমি আবিষ্কার করলাম আমি ওকে জড়িয়ে ধরে কাঁদছি। অপু ভাবল ব্যথা পেয়ে কাঁদছি। অপু সুযোগ পেয়েও আমাকে জড়িয়ে ধরেনি। তেমন ছেলেই নয় সে। মাথায় হাত রেখে বিব্রত হয়ে বলল,
– বেশি ব্যথা পেয়েছিস?
আমি ক্ষনিকের ভীষণ আবেগ সামলে ওর বুকের উপর হতে মাথা তুলে সরে গিয়ে বললাম,
– হুম।
আমার ইচ্ছে হয়েছিল অপু আমাকে জড়িয়ে ধরুক। দুর্নিবার ইচ্ছে। আর ইচ্ছে হয়েছিল পৃথিবীর প্রথম মানব যেমন করে প্রথম মানবীকে চুম্বন করেছিল তেমন করে একটা চুম্বন সে এঁকে দিত যদি! অপু কি জানত আমার ইচ্ছের কথা? বুঝতে পেরেছিল সে?

[চলবে]

০১/০৩/২০১৯, ১০.৪০ PM

শেষ বিকেলের মেয়ে (প্রথম পর্ব)

শেষ বিকেলের মেয়ে (দ্বিতীয় পর্ব)

শেষ বিকেলের মেয়ে (চতুর্থ পর্ব)

শেষ বিকেলের মেয়ে (পঞ্চম পর্ব)

শেষ বিকেলের মেয়ে (ষষ্ঠ পর্ব)

শেষ বিকেলের মেয়ে (সপ্তম পর্ব)

শেষ বিকেলের মেয়ে (শেষ পর্ব)

2 thoughts on “শেষ বিকেলের মেয়ে (তৃতীয় পর্ব)”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *