সত্য বচন (ষষ্ঠ পর্ব)

  •  
  •  
  •  
  •  

খুব মনে পড়ছে স্কুলে শেষ পিরিয়ড খতম হতেই ঘন্টা বাজতো। প্রথমে আট টা ঘন্টা পরে আরো অনেক ছুটির ঘন্টা। একরাশ হইহুল্লোয় ক্লাস থেকে বের হতাম। সপ্তাহের ৬ টা দিনে প্রতিদিন বিকেল চারটায় প্রতিবার মুক্তির স্বাদ। প্রত্যেকবার একই রকম অনুভূতি। এখন ক্লাস শুরু হয় নিস্তব্ধতায় শেষ হয় তারচেয়েও চুপি চুপি। প্রতি ক্লাসে বন্দিত্বের অনুভূতি বোধ হয় প্রবল। মোটামুটি হুট করেই প্ল্যান ছাড়া জম্পেস ঘুরাফিরাগুলো আনন্দময় হয়। পা ব্যাথা পর্যন্ত হাটাহাটি তারপর বাড়ি ফেরা হয়। এই শহরের কোলাহলে, ব্যস্ততায় আমি নিতান্তই খুব আনপ্রোডাক্টিভ দিন কাটাচ্ছিলাম।

আজ তার বিরতি ছিলো। কিছুটা সময় গেছে কারো দিকে ফিরে দেখার সময় হয়নি, কারো কথা কানে নেওয়া হয়নি। সময় অল্প আছে, তাতে কি! অল্প সময় ব্যস্ততম আনন্দময় হয়। কিভাবে তা আমি এবং আমরা জানি। তারপর বিরক্তি, প্রেম, মোহ, বন্ধুত্ব, আবেগ হাত ধরাধরি করে হাটতে থাকে। আলাদা করার সময়টুকুও কখন যেনো হারিয়ে যায়। খুঁজে পাওয়া যায়না আর। প্রত্যেক মুহুর্ত অসহ্য বোধ হয়। আমরা মানুষেরা খুব সহজেই বদলাই। সবার সাথেই স্বার্থপর হই।

পরিশেষে, বন্ধু ভাগ্য সবার ভালো হয়না। আমার বোধহয় খুব একটা খারাপনা। আমি অসম্ভব ভালো বন্ধু পেয়েছি। দূরত্ব হয়তো আছে। হয়তোবা আরো বাড়বে। অনেক কথাই হয়তো এখন আর বলা হয়না। সামনে অনেক কিছুই হয়তো জানাও হবেনা। কিন্তু তারপরেও কয়জন এমন সময় কাটায় কখনো কখনো!

[চলবে]

০১/০৮/২০২০, ১১.৫২ PM

সত্য বচন (প্রথম পর্ব)

সত্য বচন (দ্বিতীয় পর্ব)

সত্য বচন (তৃতীয় পর্ব)

সত্য বচন (চতূর্থ পর্ব)

সত্য বচন (পঞ্চম পর্ব)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *