স্বপ্নবিলাসী মন

  • 3
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

“তুমি এলে বৃষ্টি ছোঁব তাইতো বসে থাকা,
প্রথম কিছু বৃষ্টি ফোটা তোমার জন্যে রাখা।”

মানুষ অনেক শখ করে খাঁচায় পাখি পোষে, নিজের সুখ-দুঃখকে পাখির খাঁচার পাশে দাঁড়িয়ে কিছুটা বোঝাতে চায় পাখিকে। নিজের শখের জন্য পাখিটিকে কখনও উড়ার সুযোগ দেয় না আর আকাশকে সামনে রেখেও পাখি ভুলে যায় তার সমস্ত কৌশল। আবার যখন মানুষ খুব বেশি আনন্দে থাকে তখন পাখিকে তাদের মনের সুখে বনে-জঙ্গলে ছেড়ে দিয়ে আসে। কিন্তু পথহারা পাখি অনেক আগেই তার ডানা থাকা সত্তেও তা বিসর্জন দিয়েছে। হয়তো কোন বড় পাখির আক্রমণে কিংবা ঝড়ের তাণ্ডবে পোষা পাখি প্রাণ হারায়।

মানুষের জীবনও এই রকমই। যে একা চলতে প্রস্তুত, তাকে স্বপ্ন দেখায় একদল স্বপ্নবিলাসী মানুষ। তখন স্বাধীনচেতা মানুষটি নিজের স্বাধীনতা ছেড়ে স্বেচ্ছায় পরাধীনতার কাছে আত্মসমর্পণ করে। ধীরে ধীরে সে তার সমস্ত শক্তি হারিয়ে ফেলে আর স্বপ্নবিলাসী মানুষটির উপর পূর্ণ আস্থা রাখতে শুরু করে। আর এদিকে যখন ঘুমের ঘোর কেটে যায় তখন স্বপ্নের অবসান ঘটে, স্বপ্নবিলাসী মানুষটিও ভুলে যায় যে সে কাকে স্বপ্ন দেখাত। তাই বাস্তবে খুঁজে নেয় এমন কাউকে যে সাদাকালো স্বপ্নের চেয়ে আরও বেশি রঙিন। আর এদিকে পথহারা মানুষ বেঁচে থাকার অর্থ খুঁজে পায় না।

কেউবা ডাঙায় ঝোলে, কেউবা জলে ভাসে আবার কেউবা কোন অন্ধকারে হারিয়ে যায়। এখানে দোষ কার বেশি? যে স্বপ্ন দেখে নাকি যে স্বপ্ন দেখায়? তাই শখ করে কেউ পাখি পোষার মতো কোন খাঁচায় মানুষের মন নামক পাখিটিকে বন্দী করবেন না। কারণ আপনার মত এমন বিলাসী মানুষ কখনও একটি পথভ্রষ্টটার দায়ভার নেবে না।”

খুব করে চাই ভালো থাকুক সেই সব মানুষেরা, যারা ভালবাসার মানুষের সাথে ভালবাসার বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে আছে পরম মায়ায়। খুব চাইছি তারা যেন একে অপরকে সন্দেহ নয়, ঝগড়া নয়, রাগ-অভিমান দিয়ে রাতের অখন্ড নিরবতাকে চোখের জলে রুপান্তরিত না করুক। ভালবাসার মানুষটাকে আর না কাঁদাক। প্রয়তিটা দিন শুরু হোক কাছে থাকার, ভাল থাকার এবং ভাল রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়ে।

১২/০৬/২০১৬, ১১.৫৫ AM

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *