অদ্ভুত আঁধার (প্রথম পর্ব)

বেঙ্গল গ্যালারিতে এসে বেশ অবাকই হলাম। এখানে এসেছি বিপাশার একক চিত্রপ্রদর্শনী দেখতে। প্রদর্শনীর নাম ‘আসছে ফাগুনে দ্বিগুণ হব’ নামে-চিত্রকর্মে মুগ্ধ হলেও দূর থেকে বিপাশাকে দেখে চিনতে আমার বেশ কষ্টই হলো। ওকে শেষবার দেখেছিলাম বছর দশেক আগে। অনেক বদলে গেছে বিপাশা, বুড়িয়েও গেছে খানিকটা। ও যখন ছোট ছিল, তখন আমি যে খুব-একটা বড় ছিলাম; তাও না। বিশ্ববিদ্যালয়ে আমার চার ক্লাস নিচে পড়ত বিপাশা। আমি বাংলায়, ও চারুকলায়। ওর প্রেমিক বশির আমার সহপাঠী ছিল। সেই সূত্রে বশিরের ওপর ছিল আমার অনিবার্য ঈর্ষা। বন্ধুর সাফল্যে ওপরে-ওপরে উল্লসিত হলেও ভেতরে-ভেতরে মানুষ জ্বলে-জ্বলে অঙ্গার হয়, পুড়ে-পুড়ে খাক হয়। নিজে অভুক্ত থাকার মাঝে যত যন্ত্রণা, এর চেয়ে বেশি যন্ত্রণা বোধ হয় অন্যকে খেতে দেখলে। Continue reading “অদ্ভুত আঁধার (প্রথম পর্ব)”