অভয়ের বিয়ে (পঞ্চম পর্ব)

ওকে পুরো রিডিং রুমটা দেখালাম। ফ্লোরে ছোট্ট বিছানাটা ওর মনে হয় খুব পছন্দ হয়েছে। পাশেই ডিভান। জানালার পাশে ডিভানে হেলান দিয়ে শুয়ে থাকলে আকাশ দেখা যায়। রিডিং রুমের চারদিকে চারটা স্পিকার রেখেছি। আর একটা এমপিথ্রি প্লেয়ার। কোন গান নেই। শুধু ইন্সট্রুমেন্টালL। চালিয়ে দিলাম এমপিথ্রি। শুরুতেই আমার প্রিয় ইন্সট্রুমেন্টাল- দ্য লোনলি শেপার্ডা। হালকা মিউজিকে ভরে গেল পুরো ঘর। পুনা বুক সেলফের সামনে বই গুলোর উপরে হাত বুলাচ্ছে।
– “সব তো একেবারেই নতুন মনে হচ্ছে।”
– “নতুন বলতে কি। আসলে অনেক দিন থেকেই বই গুলো জমাচ্ছি। কিছু একটু পুরনোই হয়ে গেছে। তবে একটা বইও কেউ পড়েনি। সেই হিসাবে নতুন।”
– “কিন্তু তাই বলে এটা ভেবো না যে প্রতিমাসে আমাকে বই কিনে দিতে হবেনা। গুনে গুনে ঠিক ২৫ টা বই প্রতিমাসেই আমার চাই।”
– “মানে একটু কি ছাড় দেওয়া যায়না পুনা। এই ধরো মাসে যদি দশ বারোটা…।” Continue reading “অভয়ের বিয়ে (পঞ্চম পর্ব)”