বিচ্ছেদ-অবিচ্ছেদে দিনগুজরান

আজকাল বিচ্ছেদ ব্যাপারটা এত সস্তা হয়ে গেছে যে আনফ্রেন্ড কিংবা ব্লক করে দেয়াটাই সম্পর্কের দফারফার পন্থা হয়ে দাঁড়িয়েছে। একটা সম্পর্ক গড়ে উঠবার ব্যাপারটাও একই রকম সস্তা হয়ে গেছে যেন ফ্রেন্ডলিস্টে থাকা মানেই সম্পর্ক থাকা। বিচ্ছেদ বা সম্পর্ক বলতে এখানে শুধু বিয়ে কিংবা প্রেমসংক্রান্ত বিষয়গুলোর কথা বলছি না। বরং সব ধরনের সম্পর্কের ক্ষেত্রেই এই বিষয়গুলো সত্য। ফেসবুকে আনফ্রেন্ড কিংবা ব্লক করার মাধ্যমেই বহুদিনের গড়ে ওঠা একটা সম্পর্কের উপর যতিচিহ্ন বসিয়ে ফেলা যায়? তবু আমরা রেগে গেলে প্রিয় মানুষদের ব্লক করে দেখছি, কেউ ব্লক করে দিলে চূড়ান্ত অপমান মনে করে নিজের ইগোর কারণে আর তার সাথে যোগাযোগ করছি না কখনোই। অতীতেও যে দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কগুলোতে ঝগড়া, মনোমালিন্য হতো না তেমনও নয়। বন্ধুবান্ধবদের মধ্যে তো মারামারি পর্যন্ত হতো। Continue reading “বিচ্ছেদ-অবিচ্ছেদে দিনগুজরান”

ময়ূরাক্ষী

রুপাঃ তুমি কি জানো, আমি তোমার কথা খুব ভাবি?
হিমুঃ জানি।
রুপাঃ সত্যি জানো?
হিমুঃ হুম, সত্যি।
রুপাঃ কি করে জানো?
হিমুঃ ভালোবাসা টের পাওয়া যায়।
রুপাঃ কেন জানি তোমার কথা সব সময় মনে হয়, এর নাম কি ভালোবাসা?
হিমুঃ আমার জানা নেই রুপা।
রুপাঃ তুমি কি আসবে আমাদের বাসায়?
হিমুঃ আসবো।
রুপাঃ কখন আসবে? Continue reading “ময়ূরাক্ষী”

আমি

★ আমি যদি পতিতাবৃত্তি নিয়ে কোন আর্টিকেল লিখি নিশ্চই আমি পতিতা নই।
★ যদি হিজড়াদের নিয়ে কোন লিখা শেয়ার দেই তারমানে আমি হিজড়া হয়ে যাইনি।
★ লেসবিয়ান বা গে নিয়ে কোন ডকুমেন্টারি ক্লিপ আমাকে কৌতুহলী করলেও দুটোর একটাও কিন্তু আমি নই।
★ এইডস নিয়ে লিখলেই কি আমার এইডস আছে নাকি? আজব!
★ যদি আমি মন খারাপ নিয়ে দুটো কথা আউড়াই তারমানে আমার সংসারে কোন সমস্যা ঘটেনি। অনেক সময়, অনেকদিনের না দেখা মায়ের মুখখানির জন্যও আমার যে মন পোড়ায় এ সমাজের তথাকথিত শুভাকাঙ্ক্ষীগন সহজভাবে এ বিষয়টা হয়ত ভাবতেই পারেনা।
★ ডিভোর্স, এডাপশন, সেকেন্ডলি মেরিড, সেপারেশন, ব্রোকেন ফেমিলি – Continue reading “আমি”

হুকুম

এক রাজা একদিন দেখতে চাইলেন তার রাজ্যবাসীদের ঘরে কার হুকুম চলে? স্বামীর নাকি, স্ত্রীর। তিনি রাজ্যে ঘোষণা করলেন,
– যার ঘরে বউ এর কথা মানা হয় সে রাজপ্রাসাদে এসে একটা করে আপেল নিয়ে যাবে। আর যার ঘরে স্বামীর কথা চলে সে পাবে একটা ঘোড়া।
পরের দিন সমস্ত রাজ্য বাসী হাজির, সবাই একটা করে আপেল নিয়ে ঘরে চলে যেতে লাগলো। রাজা ভাবলেন সন্ধ্যে হয়ে গেল এখনো কি এমন একজনকেও পাওয়া যাবে না যার ঘরে স্বামীর কথা চলে। এমন সময় একজন এলো লম্বা চওড়া স্বাস্থ্য, ইয়া বড় গোঁফ। সে এসে বললো,
– “আমার ঘরে আমারই কথা চলে।”
রাজা বেজায় খুশি হলেন তিনি বললেন,
– “যাও, আমার ঘোড়াশাল থেকে সব থেকে ভালো ওই কালো ঘোড়াটা তোমায় দিলাম।”
লোকটা ঘোড়া নিয়ে চলে গেলো। রাজা খুশি মনে বললেন, Continue reading “হুকুম”

চিত্রশিল্পী ভিনসেন্ট ভ্যান গঘ (দ্বিতীয় পর্ব)

উনার সমস্যার কথা জানতে চাইলে উনি যা বললেন তার সারমর্ম হচ্ছে, তাকে তার স্বামী সন্তান কেও ভালবাসেনা। তার শ্বশুরবাড়ির লোকেরা সারাক্ষণ তাকে ছোট করে, ইগ্নর করে, তাকে নিয়ে আড়ালে কথা বলে, ফিসফিস করে। এমনকি তিনি মনে করেন তার স্বামীর এক্সট্রা ম্যারিটাল এফেয়ার আছে একাধিক। বাসায় যে বুয়া কাজ করে তার সাথেও তার স্বামীর সম্পর্ক আছে বলে তিনি মনে করেন। শেষ কথা হল, তার জীবন পুরাপুরি ব্যর্থ, উনি মরে যেতে চান। আমি তার সাথে খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে কথা বললাম তার বক্তব্যের পক্ষে যুক্তি বের করার উদ্দেশ্যে। দুঃখজনক ভাবে উনি সত্যতা প্রমাণের মত কোন যুক্তিই দিতে পারলেন না। কথা বারতায় বেরিয়ে এল, এগুলো নিছক তার অনুমান, তার ইমাজিনেশন।

তার সামনে অন্য কেও কথা বলেই মনে হয় তারা তাকে নিয়েই কথা বলছে, Continue reading “চিত্রশিল্পী ভিনসেন্ট ভ্যান গঘ (দ্বিতীয় পর্ব)”

ল্যাও ঠ্যালা ডট কম

– আপনি বলছেন আপনি জেনে শুনে এমন একটা নাম দিয়েছেন?
– জি জনাব! কোন সমাস্যা?
– না তা কেন? নামটা কেমন অশ্লীল না?
– কোন এঙ্গেল এ এটা অশ্লীল?
– সব এঙ্গেল এ…।
– আরে রাহেন মিয়া পুরা দেশ এহন ঠ্যালার উপরে চলে আর আপনে কন অশ্লীল?
– দেশ ঠ্যালার উপর চলে? একটু বেশি হলো না?
– হইছে নাকি? কমায় দিমু? দেশ ধাক্কার উপর চলে। আমরা গান্ধি বাদে বিশ্বাসি তাই ধাক্কার যায়গায় ঠেলি। আইচ্ছা ভাই আপনে সাংবাদিক না অন্য কিছু? তখন থেইক্কা একি প্যাঁচালে আছেন? ঠ্যালা লাগবো?
– না না তা কেনো? তবে যাই বলেন আপনার কনসেপ্ট টা খুবি ভালো। আচ্ছা এই ঈদে লঞ্চ করছেন নতুন পোর্টাল ল্যাও ঠ্যালা ডট কম। কেন বলেন তো? Continue reading “ল্যাও ঠ্যালা ডট কম”

Page 1 of 512345