অ্যা লং হিষ্টোরি অফ অ্যা শর্ট জার্নি (ষষ্ঠ পর্ব)

ষোল
রাত বারার সাথে সাথে আমার শরীর গরম হতে থাকলো। সেই সাথে পেট পাক দেয়া শুরু করলো। এবং প্রচন্ড ঘাম শরীর বেয়ে গোসল করার মতো হয়ে গেল। মাথার উপরের ফ্যান প্রান পন ঘুরেও গরম আর অস্থিরতায় ভরা এই আমাকে ঠান্ডা করতে সম্পূর্ন ব্যর্থ হলো। যতই রাত বাড়ছে, ততই আমি ক্লান্ত হয়ে পরছি। শরিরের শক্তি লোপ পাবার মতো হয়ে গেল। শুধু মাত্র থ্রি কোয়ার্টার প্যান্ট ছাড়া শরিরে কিছুই নেই। তার পরেও গরমে সিদ্ধ হবার জোগার। এ যেন কেউ আমাকে বড় পাতিলে ফুটন্ত পানিতে ছেঁড়ে, নিচে দিয়ে ইট ভাটার চুল্লি জ্বালিয়ে দিয়েছে। ঘড়ির দিকে তাকালাম। রাত বাজে ১২ টা। মুরগির বিরিয়ানি খাওয়ার পরে আমি হাফ প্যাকেট সল্টেড চিপস এবং হাফ বোতল আমের জুস খেয়েছিলাম। সেটা যেন মারাত্নক হয়ে ধরা দিলো। আমি তখন একটুও বুঝতে পারিনি, বাসি গন্ধ যুক্ত বিরানির সাথে সল্টেড চিপস মিলে পেটে পাক ধরাবে এবং বাজে বিক্রিয়া ঘটিয়ে আমাকে প্রচন্ড রকম অসুস্থ করে তুলবে। আমি ফ্যানের দিকে হা করে তাকিয়ে আছি, আর লম্বা লম্বা নিঃশ্বাস নিচ্ছি। আমার মাথা ধিরে ধিরে কাজ করা বন্ধ করে দিচ্ছে। হাত পা অবস হয়ে আসছে। Continue reading “অ্যা লং হিষ্টোরি অফ অ্যা শর্ট জার্নি (ষষ্ঠ পর্ব)”