প্রেমিকার বিয়ে

আমি সাধারণ কোনো প্রেমিক হতে চাইনি। আমি চেয়েছি আর দশটা প্রেমিক থেকে ভিন্ন কেউ হই। তাই আমার সাথে নিতুর প্রেমটা ছিলো ইদানিং সময়ের ‘রাজনীতি’র মতো। চলছে, তবে আগামাথা নেই। সব প্রেমিক হাঁটু গেড়ে বসে প্রেমিকার হাত ধরে প্রপোজ করে, আমাকে আর দশটা প্রেমিকের মতো হলে চলবেনা। আমি হাঁটু গেড়ে বসে বলিনি ‘মন দাও’। নিতুর সামনে গিয়ে সরাসরি ওর চোখের দিকে তাকিয়ে বলেছি,
– ‘আমি’ তো ‘আমায়’ প্রচন্ড ভালোবাসি; আর ‘আমায়’ ‘আমি’ ও। কিন্তু আজকাল ‘আমায়’ ‘আমাকে’ ভালো বাসছে না। ‘তোমাকে’ বাসছে। তাই ‘আমাকে’ও বাধ্য হয়ে ‘তোমাকে’ বাসতে হচ্ছে।
প্রেমিক প্রেমিকা হলেই রাতভর ফোনে গুজুর- গাজুর, ফুসুর- ফাসুর করতে হয়। সবাই ই করে। আমি আর দশটা সাধারণ- কমন প্রেমিক নই। আমি রাত হলে নিতুকে ব্লক দিয়ে শুয়ে পড়তাম, সকাল হলে আনব্লক করতাম। Continue reading “প্রেমিকার বিয়ে”