নীতু

– ‘জানালাটা বন্ধ করে দেবে? ঠাণ্ডা বাতাস আসছে।’
– ‘হ্যাঁ, দিচ্ছি।’
নীতু উঠে গেল। নীতুর শ্যামলা ছিপছিপে শরীরে অনভ্যস্ত এলোমেলো জড়ানো শাড়ি, পিঠে লুটিয়ে থাকা বেণী, বাহু তুলে জানালা বন্ধ করার ছোট ভংগিমাটুকুও অপরূপ লাগে আমার। নতুন নতুন বলেই কি! দু’দিন সবে হল বিয়ে হয়েছে আমাদের। সেটাও খুব চট করে, মাত্র একবারের দেখাতে। সত্যি বলতে, আমি প্রথমেই ওর অসম্ভব মিষ্টি মুখের প্রেমে পড়ে গিয়েছিলাম। বাবা-মা ওকে আংটি পরিয়ে দিতে চাওয়ায় তাই আর আপত্তি করি নি। সেদিন ড্রয়িং রুমে মুরুব্বিদের মাঝে বসে মাথা নিচু করে মুখ টিপে টিপে হাসতে থাকা মেয়েটি এখন আমার বউ। আমার। কেমন অবাক লাগে ভাবতে।

শীতের সন্ধ্যা, গরম চায়ের কাপ হাতে আধশোয়া হয়ে আমি। Continue reading “নীতু”