শিক্ষা

আমার বাবার দেওয়া তিনটে উপদেশ আমাকে আজ এখানে পৌঁছে দিয়েছে। ছোটবেলায় আমি খুব স্বার্থপর ছিলাম। সবকিছুতেই নিজের সুবিধে আর লাভটা বুঝে নেবার চেষ্টা করতাম। আমার এই দোষের জন্য আস্তে আস্তে আমার বন্ধুর সংখ্যা কমতে শুরু করল। শেষে অবস্থা এমন হোলো যে আমার আর কোনো বন্ধুই অবশিষ্ট রইল না। কিন্তু, সেই অপরিনত বয়েসে আমি এর জন্য নিজেকে দায়ী না করে সিদ্ধান্ত নিলাম আমার বন্ধুরা আসলে হিংসুটে। ওরা আমার ভাল দেখতে পারে না। আমার বাবা সবই লক্ষ করতেন, মুখে কিছু না বললেও। একদিন রাতে বাড়ি ফিরে দেখি, বাবা আমার জন্য খাবার টেবিলে অপেক্ষা করছেন। টেবিলে রাখা আছে রান্না করা ন্যুডলের দুটি ডিশ। একটা ডিশে সেদ্ধ ন্যুডলের ওপর রাখা একটি খোসা ছাড়ানো সেদ্ধ ডিম। অন্য ডিশটিতে শুধু ন্যুডলসের যে কোনো একটি ডিশ বেছে নিতে বললেন বাবা। Continue reading “শিক্ষা”

সত্য বচন (চতূর্থ পর্ব)

আপাতত তুমি নিজের জ্ঞানে নিজের পরিচয় কিছুটা হলেও তৈরি করেছো। হুটহাট কখনোই অধৈর্য্য হয়োনা সুখের জন্য। আজ খারাপ দিন যাচ্ছে মানে তোমার উপর আল্লাহর দয়া উঠে গেছে, গজব নাযিল হইছে, উচিত শিক্ষা হয়েছে এভাবে তুমি ভাবতে যেয়ো না। এই জাতীয় কথা তারাই তোমাকে বলবে যারা তোমার সব ব্যাপারে নাক গলাবে, তোষামোদি করবে, তোমার অগোচরে নিজের লাভাংশ খুঁজবে। জানো, এই জাতীয় মানুষের কারনে অনেক ধৈর্য্যশীল মানুষও অধৈর্য্য হয়ে সুখের পিছন দৌড়াঁয়। সুখ খুজঁতে নিজেকে কেউ কেউ পাপী পর্যন্ত বানায় ফেলে। হীতাহিত জ্ঞান হারায়, বিবেকহীনও হয়ে যায়, মনের অজান্তেই। Continue reading “সত্য বচন (চতূর্থ পর্ব)”

সত্য বচন (তৃতীয় পর্ব)

তাদের অতীতের কোন দুঃসময়ের কথা মনে থাকেনা। তারা গায়েবী কথা জেগে জেগে শুনে, ঘুমের ভেতরেও শুনে। আর ভাবে একটু আগে তার কাছে অমুকে কথাগুলো বলে গেছে, এই ধরনের মানুষের কথাকে সিরিয়াসলি গ্রহন করবে না। তাদের দল ভারী, তাই তারা মিথ্যাকে সত্য বলে প্রমানও করবে। তাও তারই মত লোভী টাইপের মানুষকে সাক্ষী বানিয়ে। তোমার জেনারেল নলেজটা তখন তার এসব সাক্ষ্য প্রমানে একমত প্রকাশ করতেও বাধ্য হবে। কেননা তুমি বিব্রতকর অবস্থার শিকার হচ্ছো এসব মানুষের কারনে। তুমি এসব মানুষের উপর ভরসা করলে জীবনে কেবল তোমাকে ঠকতেই হবে, এসব মানুষের ভেতর বাহিরের রুপ চেনা মারাত্মক কঠিন। এসব মানুষের জন্য তোমাকে বিভিন্ন জনের কাছে বিভিন্ন রকম অসম্মানজনক কথা শুনতে হবে, এমনকি কখনো বা তুমিও অপদস্ত হবে। সাবধান থেকো, নিজের ব্যক্তিত্বকে বিক্রি করোনা কারো কুপরামর্শ শুনে। আগের দিনের বিজ্ঞ লোকেরা বলতো,
– কম পানির মাছ বেশি পানিতে পড়লে লাফায় বেশি। Continue reading “সত্য বচন (তৃতীয় পর্ব)”

সত্য বচন (দ্বিতীয় পর্ব)

নিজেকে সবসময় অন্যের থেকে বেশি মুল্যবান ভেবোনা। নিজেকে মূল্যায়ন করার জন্য কাওকে বলোনা। অপরের দোষ দেখে জোড়ে জোড়ে হেসো না। অপরের দূরাবস্থাকে কর্মদোষ বলোনা। নিজেকে এতবেশি অসহায়ও ভেবোনা। নিজের প্রশংসা নিজে করতে করতে হাপিঁয়ে উঠো না। অপরের গুণ নিয়ে সন্দেহ করোনা, অপরের যোগ্যতার উপর ঘৃণার ঢিল ছুঁড়ে মেরো না। নিজেকে একটু সময় দিতে চেষ্টা করো। নিজের দোষগুণ নিয়ে নিজেই বৈঠক করো। নিজের দোষগুলো ভালো ভাবে দেখার চেষ্টা করবে এবং গুনগুলো আজীবন ধরে রাখতে তোমার আশেপাশের ভালো মানুষদের সাথে বন্ধুত্ব করবে। একজন ভালো মানুষের সাথে তোমার বন্ধুত্ব তোমাকে আরো বেশি ভালো কাজে উৎসাহিত করবে। আর খারাপ মানুষ, সবসময় তোমাকে ভালো মানুষের সাথে বন্ধুত্ব করতে দিবেনা। তোমাকে এমনভাবে তাদের কাছ থেকে দুরে সরিয়ে রাখবে যেনো পৃথিবীতে সে ছাড়া বাকী সবাই খারাপ, স্বার্থপর, লোভী মানুষ। Continue reading “সত্য বচন (দ্বিতীয় পর্ব)”

পিতার চিঠি

সন্তানের জন্য বাবার লেখা অসাধারন এক চিঠি। ভালো লাগলে আপনার সন্তানদেরও পড়তে দিন।

প্রিয় সন্তান,
আমি তোমাকে ৩ টি কারনে এই চিঠিটি লিখছি,
১। জীবন, ভাগ্য এবং দুর্ঘটনার কোন নিশ্চয়তা নেই, কেউ জানে না সে কতদিন বাঁচবে।
২। আমি তোমার বাবা, যদি আমি তোমাকে এই কথা না বলি, অন্য কেউ বলবে না।
৩। যা লিখলাম, তা আমার নিজের ব্যক্তিগত তিক্ত অভিজ্ঞতা- এটা হয়তো তোমাকে অনেক অপ্রয়োজনীয় কষ্ট পাওয়া থেকে রক্ষা করতে পারে।
জীবনে চলার পথে এগুলো মনে রাখার চেষ্টা কোরো:

১। যারা তোমার প্রতি সদয় ছিল না, তাঁদের উপর অসন্তোষ পুষে রেখোনা। Continue reading “পিতার চিঠি”

শিক্ষিত ডাকাত বনাম মূর্খ ডাকাত

ফ্রান্সের এক নামকরা ব্যাংকে ব্যাংক ডাকাতির সময় ডাকাত দলের সর্দার বন্দুক হাতে নিয়ে সবার উদ্দেশ্যে বললো,
– “কেউ কোন নড়াচড়া করবেন না, টাকা গেলে যাবে সরকারের কিন্তু জীবন গেলে যাবে আপনার। তাই ভাবনা চিন্তা করে আপনার পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করুন।”
এই কথা শোনার পর, সবাই শান্ত হয়ে চুপচাপ মাথা নিচু করে শুয়ে পড়েছিল। এই ব্যাপারটাকে বলে “Mind Changing Concept” অর্থাৎ মানুষের ব্রেইনকে আপনার সুবিধা অনুযায়ী অন্যদিকে কনভার্ট করে ফেলা। সবাই যখন শুয়ে পড়েছিল, তখন এক সুন্দরী মহিলার অসাবধানবশত তার কাপড় পা থেকে কিছুটা উপরে উঠে গিয়েছিল। ডাকাত দলের সর্দার তার দিকে তাকিয়ে চিৎকার করে বলে উঠল,
– “আপনার কাপড় ঠিক করুন! আমরা ব্যাংক ডাকাতি করতে এসেছি, রেপ করতে না।” Continue reading “শিক্ষিত ডাকাত বনাম মূর্খ ডাকাত”

Page 3 of 512345