টাকা মানি, মানি টাকা

“মন! মন আবার কি? টাকা ছাড়া মন কি? টাকা ছাড়া আমাদের মন নাই; টাঁকশালে আমাদের মন ভাঙ্গে গড়ে!” বঙ্গিমের কমলাকান্তের উক্তি এটি। ধনতান্ত্রিক সভ্যতার শ্রেষ্ঠতম অবদান এই মন, যা টাকশালে ভাঙে, গড়ে। টাকা স্বর্গ, টাকা ধর্ম, টাকাই জপ তপ ধ্যান। অটোমোবিল ও স্কাইস্ক্রেপার যুগে মেট্রোপলিটন মহানগরে আর কোন টান মানুষকে টানতে পারে না। এককালে মা ছিলেন স্বর্গাদপি গরীয়সী এবং পিতা স্বর্গ পিতা ধর্ম, পিতাই ছিলেন পরম তপস্যার বস্তু। তখন মানুষের টানে মানুষ চলত, গরুর টানে গাড়ি চলত মাটির পথে। ইট পাথর লোহার পথ ছিল না, বাড়ি ঘর ছিল না, অটোর মতো যন্ত্র মানুষকে প্রচণ্ড বেগে টানত না। মাটির টানে, মানুষের টানে, মানুষ চলত। ক্রমে মাটি থেকে দূরে সরে যেতে থাকলো মানুষ। মাটি থেকে সিঁড়ি বেয়ে উপরে উঠতে লাগলো মানুষ। কংক্রিটের স্পর্ষে, মাটির স্পর্ষবোধ চলে গেল। গৃহসীমানায় প্রাচীর উঠলো, ছোট প্রাচীর, বড় প্রাচীর। ইটের উচ্চতার আড়ালে মানুশের মনও বিচ্ছিন্ন হয়ে গেল। Continue reading “টাকা মানি, মানি টাকা”