ধৈর্য ইসলামের সৌন্দর্য (দ্বিতীয় পর্ব)

ধৈর্য মানবজীবনে পরীক্ষাস্বরূপ। আল্লাহ রাব্বুল ইজ্জাত কোরআনুল আজিমে বলেন,
– ‘তাবারকাল্লাজি বিইয়াদিহিল মুলকু ওয়া হুওয়া আলা কুল্লি শাইয়িন কদির। আল্লাজি খলাকাল মাওতা ওয়াল হায়াতা, লিইয়াবলুওয়াকুম আইয়ুকুম আহ্ছানু আমালা; ওয়া হুওয়াল আজিজুল গফুর।’
অর্থ: মহামহিমান্বিত তিনি সর্বময় কর্তৃত্ব যাঁর করায়ত্ত; তিনি সর্ববিষয়ে সর্বশক্তিমান। যিনি সৃষ্টি করেছেন মৃত্যু ও জীবন, তোমাদিগকে পরীক্ষা করার জন্য—কে তোমাদের মধ্যে কর্মে উত্তম? তিনি পরাক্রমশালী, ক্ষমাশীল। (পারা: ২৯, সূরা-৬৭ মুলক, আয়াত: ১-২)। ধৈর্যশীলদের জন্য রয়েছে সফলতার সুসংবাদ। এ বিষয়ে আল্লাহ তাআলা কোরআন মজিদে বলেন,
– ‘আমি তোমাদিগকে কিছু ভয়, ক্ষুধা এবং ধন-সম্পদ, জীবন ও ফল-ফসলের ক্ষয়ক্ষতি দ্বারা অবশ্যই পরীক্ষা করব। তুমি শুভ সংবাদ দাও ধৈর্যশীলদের, যারা তাদের ওপর বিপদ আপতিত হলে বলে, (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) ‘আমরা তো আল্লাহর এবং নিশ্চিতভাবে তাঁর দিকেই প্রত্যাবর্তনকারী’। (পারা: ২, সূরা-২ বাকারা, আয়াত: ১৫৫-১৫৭)। Continue reading “ধৈর্য ইসলামের সৌন্দর্য (দ্বিতীয় পর্ব)”

ধৈর্য ইসলামের সৌন্দর্য (প্রথম পর্ব)

ইসলাম মানবতার ধর্ম। মানব চরিত্রের উৎকর্ষ সাধনই এর মূল লক্ষ্য। এ মহান লক্ষ্যে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আদি যুগ থেকে নবী-রাসুল পাঠিয়েছেন। সর্বশেষ ও সর্বশ্রেষ্ঠ নবী মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে পাঠিয়েছেন মানবতার উৎকর্ষের পূর্ণতা প্রদানের জন্য। মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) বলেন,
– ‘বুইছতু লিউতাম্মিমা মাকারিমাল আখলাক’,
অর্থাৎ আমাকে পাঠানো হয়েছে সুন্দর চরিত্রের পূর্ণতা প্রদানের জন্য। (মুসলিম ও তিরমিজি)। এ প্রসঙ্গে আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তাআলা কোরআন কারিমে বলেন,
– ‘ওয়া ইন্নাকা লাআলা খুলুকিন আজিম’,
অর্থাৎ হে মুহাম্মদ (সা.), নিশ্চয় তুমি মহান চরিত্রে অধিষ্ঠিত। (পারা: ২৯, সূরা-৬৮ কলম, আয়াত: ৪)। Continue reading “ধৈর্য ইসলামের সৌন্দর্য (প্রথম পর্ব)”

রব আমার মহান

দো’আ কবুল হলে বেশি খুশি হবেন নাকি কবুল না হলে? কোনো এক আলিম বলেছেন,
– “আমার যখন দরকার হয় তখন আমি আল্লাহকে ডেকে আমার যা চাওয়ার তা চাই। যদি আল্লাহ আমার চাওয়ার কারণে আল্লাহ আমাকে ঐ জিনিস দেন তাহলে আমি একবার খুশি হই। আর যদি তিনি আমার চাওয়া কবুল না করেন অর্থাৎ না দেন তাহলে আমি দশবার খুশি হই অর্থাৎ অনেক বেশি খু্শি হই। কারণ হলো, প্রথমটি অর্থাৎ আমার দো’আ সাথে সাথে কবুল হলে সেটা আমার চাওয়া পূরণ হয়েছে। এটা ছিলো আমার চয়েজ। আর দ্বিতীয়টি অর্থাৎ আমার দো’আ কবুল না হলে সেটা হচ্ছে গায়েবের মালিক আল্লাহর চয়েজ। Continue reading “রব আমার মহান”

কবিরা গুনাহ্‌

ইসলামে মেজর সিন বা কবীরা গুনাহ হিসেবে কিছু জিনিস পয়েন্ট আউট করে দেয়া হয়েছে, যেমন
১. শিরক করা
২. হত্যা করা
৩. সুদ গ্রহন করা
৪. এতিমের সম্পত্তি আত্মসাত করা
৫. মদ খাওয়া
৬. যাদু টোনা করা
৭. চুরি করা
৮. বাবা মাকে সম্মান না করা
৯. ঠিক মত জাকাত আদায় না করা
১০. ব্যাভিচার করা Continue reading “কবিরা গুনাহ্‌”

নহন্যতে

তুমি ভাবছ মেঘ করেছে
বৃষ্টি পড়বে অনেকক্ষণ,
আসলে তো মেঘ করেনি
মন খারাপের বিজ্ঞাপন।

নাই বললেই বুকের ভেতরটা মোচড় দিয়ে ওঠে। জীবনের সমস্ত নাইগুলো হুড়মুড় করে ঢুকে পড়ে চিন্তায়।গ্রীবানালী হয়ে ওঠে ভারী। ফুসফুসের বিশেষ প্রকোষ্ঠ জানিয়ে দেয়- সে আর পেরে উঠছে না। বের হয় দীর্ঘশ্বাস। মাথার ওপরের সুবিশাল আকাশটাও মিলিয়ে যায় শূন্যে- মানে সেখানেও নাই। Continue reading “নহন্যতে”

একজন সৎ স্ত্রী দ্বীনের অর্ধেক

তার অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে ব্যাপকভাবে। আগের দীন দরিদ্র অবস্থা থেকে তিনি, এখন অনেক ভালো আছেন। বিয়ে করেছেন, সন্তানের বাবা হয়েছেন, ব্যবসায়ও ভালো করছেন। মোদ্দা কথা দীর্ঘ খরার পর তার জীবনে সুখের বৃষ্টি বইতে শুরু করেছে। ভদ্র সমাজে জায়গা করে নিতে শুরু করেছেন। তার সবচেয়ে বড় সম্পদ হচ্ছে, তিনি মনের মতন একজন সংগিনী পেয়েছেন। যদিও তার স্ত্রী তার থেকে বয়েসে বড়, তবুও ভালোবাসার কোন অভাব ছিল না। বরং তার স্ত্রীই তার সাফল্যের পিছনে অনেক বড় নিয়ামক হয়েছেন। কিংবা আল্লাহ তাকে সাফল্য, সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য দিবেন বলে হয়ত এমন স্ত্রী দিয়েছেন। তিনিও তার স্ত্রীকে সম্ভব ভালোবাসেন। Continue reading “একজন সৎ স্ত্রী দ্বীনের অর্ধেক”

Page 3 of 512345