মন খারাপের হাজারটা রং

জীবনে প্রথমবারের মত মেয়েটা আমাকে নক করলো। আমার ফেবুর ফ্রেন্ড লিষ্টে আছে অনেক আগে থেকেই। কিন্তু কেনো যেনো আমি কোন মেয়েকে নিজে থেকে নক করতে পারি না। লজ্জা আর খুব সঙ্গকোচ বোধ হয় আমার। জানি একজন ছেলে হিসেবে এটা একদম মানায় না। বাট আমি এমনই। মেয়েটি কোন রকম ভূমিকা ছাড়াই যে মেসেজটা পাঠালো, সেটি এরকমঃ
– “জানেন, “মন খারাপ” জিনিসটা না খুব অদ্ভূত!”
আমি বেশ অবাক হয়ে প্রশ্ন করলামঃ
– “কী রকম অদ্ভূত?”
উত্তর এলোঃ
– “খুব অদ্ভূত কারণে আমার মন খারাপ হয়, তাই অদ্ভূত!”
– “আজকের কারণটা কী?” Continue reading “মন খারাপের হাজারটা রং”

দর্পণ ও বাতায়ন

[অনুবাদ গল্প, মূল লেখক – পাওলো কোয়েলহো]

খুব ধনী এক লোক একবার এক সাধুর কাছে জীবনে তার কি করা উচিত – তা নিয়ে জানতে চাইলো।
সাধু তাকে একটা জানালার পাশে নিয়ে গিয়ে প্রশ্ন করলেন, “বলো তো কাঁচের ভেতর দিয়ে তুমি কি দেখতে পাচ্ছো?”
লোকটি বললো, “কিছু মানুষকে দেখছি রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছে, আর এক অন্ধ লোক রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে ভিক্ষে করছে।”
সাধু তখন তাকে একটা বড় আয়নার সামনে দাঁড় করিয়ে বললেন, “এইবার? কি দেখছো আয়নায়?”
লোকটি উত্তর দিলো, “আমি তো কেবল নিজেকেই দেখতে পাচ্ছি!” Continue reading “দর্পণ ও বাতায়ন”

সুফিয়া কামাল

কবি এবং সাহিত্যিক
(জন্মঃ- ২০ জুন, ১৯১১ – মৃত্যুঃ- ২০ নভেম্বর, ১৯৯৯)

সুফিয়া কামাল বরিশালের শায়েস্তাবাদে মামার বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার পিতার নাম সৈয়দ আব্দুল বারী। তিনি কুমিল্লার বাসিন্দা ছিলেন। যে সময়ে সুফিয়া কামালের জন্ম তখন বাঙ্গালি মুসলিম নারীদের কাটাতে হত গৃহবন্দি জীবন। যে পরিবারে সুফিয়া কামাল জন্মগ্রহণ করেন সেখানে নারীশিক্ষাকে প্রয়োজনীয় মনে করা হতোনা। স্কুল কলেজে পড়ার কোনো সুযোগ তাদের ছিলো না। পরিবারে বাংলা ভাষার প্রবেশ এক রকম নিষিদ্ধ ছিল। ঐ বিরুদ্ধ পরিবেশে সুফিয়া কামাল প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার সুযোগ পাননি। তিনি পারিবারিক নানা উত্থান পতনের মধ্যে স্বশিক্ষায় শিক্ষিত হয়েছেন। Continue reading “সুফিয়া কামাল”

নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি – A Rising Nawab

একজন মানবসন্তানের পৃথিবীতে জন্ম নেয়া নিঃসন্দেহে আনন্দের একটি ঘটনা, কিন্তু সেই আনন্দ পাওয়ার ভাগ্য নিয়ে পৃথিবীতে তিনি আসেন নি। সাত ভাই আর দুই বোনের ঘরে তিনি যখন জন্ম নিলেন, তখন তার বাবা আর মার কপালে দুশ্চিন্তার নতুন একটা ভাঁজ পড়লো। দুশ্চিন্তার ভাঁজ পড়ার কারণ ছিল অবশ্যই, উত্তরপ্রদেশের মুজাফফর নগরের বুধনা নামের যেই গ্রামে তার জন্ম, সেই গ্রামের প্রধান পেশা ছিল দুইটি- কৃষিকাজ করা আর ডাকাতি করা। বাবা কৃষক ছিলেন বলে তিনিও কৃষক হবেন – এটা সবাই ধরেই নিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি সেটা হন নাই, অনেক কষ্টে পড়াশুনা করতে থাকেন। Continue reading “নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি – A Rising Nawab”

বাংলা গোয়েন্দা সাহিত্যের আদ্যোপান্ত

বাংলা গোয়েন্দাকাহিনীর সূত্রপাত উনবিংশ শতাব্দীর শেষ দশকে। এর আগে অবশ্য বটতলার কিছু কিছু বইয়ে অপরাধকাহিনী স্থান পেয়েছিল। কিন্তু সেখনে গোয়েন্দা বা রহস্যভেদের ব্যাপারটা ঠিক ছিল না । বাংলা গোয়েন্দাসাহিত্যের সূচনা সম্পর্কিত আলোচনায় যে বইটির কথা অনেক লেখকই উল্লেখ করেছেন – সেটি হল প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়ের ‘দারোগার দপ্তর’। ‘দারোগার দপ্তর’ প্রকাশিত হয়েছিল আজ থেকে একশো বছরেরও বেশী আগে, ১৮৯২ সালে। প্রিয়নাথবাবু নিজে ছিলেন পুলিশের ডিটেকটিভ বিভাগের কর্মচারী, সুতরাং ক্রাইম ও ডিটেকশনের ব্যাপারে ওঁর প্রত্যক্ষঅভিজ্ঞতা ছিল। তারই ভিত্তিতে পুলিশী বিবরণমূলক নানান কাহিনী উনি লিখেছিলেন। কিন্তু ওঁর লেখায় সাহিত্যগুণ ছিল অনুপস্থিত। Continue reading “বাংলা গোয়েন্দা সাহিত্যের আদ্যোপান্ত”

বয়ফ্রেন্ড না থাকলে যা হয়

সংবিধিবদ্ধ সতর্কিকরন বিজ্ঞপ্তি – ইহা একটি (অ)গাঁজা খুঁড়ি ও অতিব উচ্চ মার্গিয় কাল্পনিক রোমান্টিক, সিনেম্যাটিক, কারিশম্যটিক বাংলা ছিঃনেমার দৃশ্য বিশেষ। দুর্বল চিত্তের রোগিরা ১০ হাত দূরে থাকুন।

দৃশ্য এক –
মেয়েঃ- একি আপনি আমার রুমে কিভাবে আসলেন? কি চান আপনি?
ভিলেনঃ- সুন্দরি তোমাকে আমার খুব পছন্দ হয়েছে। তোমার রুপ দেখে আমি ফিদা হয়ে গেছি।
মেয়ে:- আপনার সাহস তো কম না! বেবিয়ে যান এখান থেকে।
ভিলেন:- I am yo yo কাল্লু… আমি একবার যার দিকে তাকাই তারে উম্মা + ইয়ে না করে ছেড়ে দেই না। মু হাঃ হাঃ হাঃ গুলু গুলু আমি তোমাকে…। Continue reading “বয়ফ্রেন্ড না থাকলে যা হয়”

Page 249 of 266« First...102030...247248249250251...260...Last »