হত্যা নাকি আত্নহত্যা (প্রথম পর্ব)

এই ভেবে আর আহত হবনা আমি,
আমার মানবী বুকে একদিন চাঁদ মরেছিল।
বেঁচে থেকে থেকে বুঝেছি, মরে যাওয়া কত ব্যথা দেয়।
– রুদ্র গোস্বামী।

ডিপ্রেশনে ভোগা মানুষগুলো অনেক বেশি আত্মহত্যাপ্রবণ হয়। যারা কিছুটা ডিপ্রেশনে ভোগে, তারা হয়তো রাতে একবেলা না খেয়ে নির্ঘুম একটি রাত কাটায়। বারান্দায় দাঁড়িয়ে সিগারেট ফুঁকতে ফুঁকতে তার হতাশা গুলোকে ছাইয়ের সাথে উড়িয়ে দেয়। খুব বেশী হলে কোন নির্মাণাধীন ভবনের কোন এক নির্জন জায়গা খুঁজে নিয়ে সেখানে নেশায় বুদ হয়ে থাকে। কিছুদিন পর এরা ঠিকই স্বাভাবিক হয়। Continue reading “হত্যা নাকি আত্নহত্যা (প্রথম পর্ব)”

টোনাটুনি কিংবা উজির নাজির

আমি আবার বিতং না করে কিছুই বলতে পারিনা, তাই হাতে সময় নিয়ে পড়তে বসাই ভালো। আর তাছাড়া আমার বিশ্বাস, কেউ কেউ অন্য কারো জীবনে ঘটে যাওয়া টুকরো টুকরো ঘটনায় নিজেকে দেখা যায় কিনা সেটা জানতেও ব্লগ পড়তে আসে। তাহলে শুরু করি, আমার রুমের সাথে লাগোয়া বারান্দা। কিন্তু আমার বারান্দায় বাসার মানুষদের আনাগোনা কম। নিতান্তই খুব প্রয়োজনে। কারন, আমি একা থাকতে পছন্দ করি। শুধু একা হলেও কথা ছিলো। আমার পুরো বিষয়টাই ভিন্ন। আমি গ্রীষ্ম-বর্ষা-শরৎ-হেমন্ত-শীত ও বসন্ত সকল ঋতুতে দরজা-জানালা বন্ধ করে পর্দা দিয়ে ভালো করে ঢেকে রাখি। Continue reading “টোনাটুনি কিংবা উজির নাজির”

সম্পর্কের সাতকাহন (প্রথম পর্ব)

এক পৃথিবীর একশ রকম স্বপ্ন দেখার
সাধ্য থাকবে যে রূপকথার ,
সে রূপকথা আমার একার।
– জয় গোস্বামী

একটা সময় ছিলো, আমি দেশে এলেই পুরনো বন্ধুদের নাম্বার যোগার করে তাদের সাথে দেখা করতাম। ৬/৮ সপ্তাহর ছুটি গুলো কোথা দিয়ে যে চলে যেত টেরই পেতাম না। বিদায় বেলায় মায়ের অভিমান। আমি নাকি তাদের একটুও সময় দেই নাই। ডিপার্চারের পূর্ব মূহুর্তে আমি মা’র পায়ে সালাম করে মাকে জড়িয়ে ধরে বলতাম,
– “পরের বার এলে তোমাকেই সবচেয়ে বেশি সময় দেবো। তোমাদের পাশ্চাত্য ধাঁচে রান্না করে খাওয়াবো, তোমাদের নিয়ে ঘুরতে বের হবো।” Continue reading “সম্পর্কের সাতকাহন (প্রথম পর্ব)”

মেন্টাল এক্সপেরিমেন্টাল

চারটে দেয়াল মানেই নয়তো ঘর,
নিজের ঘরেও অনেক মানুষ পর।
কখন কিসের টানে মানুষ,
পায় যে খুঁজে বাঁচার মানে।
ঝাপসা চোখে দেখা এই শহর…
– অঞ্জন দত্ত

লাইফ নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করতে করতে নিজেই কখন যে এক্সপেরিমেন্টাল প্রজেক্টে রুপান্তরিত হয়েছি বুঝিনি। জীবনে অনেক কিছু হতে চেয়েছি। কিন্তু কিছুই হতে পারিনি। তার মানে এই নয় যে আমি ব্যর্থ একজন মানুষ। আমার ব্যর্থতাতেই আমার সফলতা। বর্তমানে ভালো একজন মানুষ হওয়ার চেষ্টায় আছি। চেস্টা করছি ভালো কিছু করার। Continue reading “মেন্টাল এক্সপেরিমেন্টাল”

ডাকপিয়নের ডাক

“বনলতা,
কেমন আছো? হ্যাঁ তোমকেই বলছি৷ তুমিইতো আমার বনলতা, নীলাঞ্জনা, কবিতা৷ আমার টুনটুনি, আমার রিমঝিম, আমার লাবণ্য সবই তো তুমি৷ নিশ্চয়ই অবাক হচ্ছো এ যুগে চিঠি লিখছি দেখে৷ কী করব বলো? খুব যে তোমাকে ছুঁয়ে দেখতে ইচ্ছে করছে৷ চিঠিটা তুমি যখন পড়বে তখন তোমার হাতের স্পর্শ আমার হৃদয়ে অনুভূত হবে৷ একটি বার শুধু হৃদয়ে হৃদয় এর ছোঁয়া পেতে আমার এ আয়োজন৷ Continue reading “ডাকপিয়নের ডাক”

পিতা, পুত্র ও বিষাদময় দুটি মৃত্যু

“Take my love, take my land,
Take me where I cannot stand.
I don’t care.
I’m still free.
You can’t take the sky from me.”

হয় একদম শেষ অথবা একদম প্রথম, কোন কিছুর মাঝামাঝি থাকা আমার বড় অপছন্দ। আমি স্বপ্ন দেখি তা বাস্তবায়িত করার জন্য। একা থাকা, মুভি দেখা, পেন্সিল দিয়ে ছবি আঁকা ও বই পড়া আমার নেশা। ভালো লাগে রাস্তায় হাঁটতে, মুভি দেখতে অথবা প্রিয় কোন বই বা গানে হারাতে। খুব বিরক্ত লাগে পিছনে কিংবা আমার আড়ালে কেউ কথা বললে। আমার সবচেয়ে ভালো বন্ধু আমার লাইব্রেরির বই গুলো, আমার মুভির কালেকশন এবং আমার কিছু পেন্সিল স্কেচ। মাঝখানে ছবি তোলার নেশা চেপেছিলো বড্ড। চান্স পেলেই আমি বেরিয়ে পড়তাম ক্যামেরা নিয়ে আর “ক্লিক… ক্লিক” শব্দের ঝড় তুলতাম।
Continue reading “পিতা, পুত্র ও বিষাদময় দুটি মৃত্যু”

Page 265 of 266« First...102030...262263264265266